মেনু নির্বাচন করুন

পুরাতন মন্দির ও মঠ

৫) ছেত্রা গ্রামের আখড়া:গুরই ইউনিয়নের নিভৃত গ্রাম ছেত্রা।এ গ্রামেই রয়েছে বহু পুরাতন স্থাপত্য নিদর্শন বৈষব ধর্মাবলম্বীদের তীর্থস্থান ছেত্রা আখড়া। প্রায় জঙ্গলাকীর্ণ এ আখড়াটি ভ্রমন পিপাসদের আকৃষ্ট করবেই।

৬) ষাইটধার লাল গোস্বমীর আখড়া:উপজেলা পরিষদের উত্তর-পশ্চিম কোনে সদর ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামে এ আখড়াটি অবস্থিত। অতি প্রাচীন এ আখড়ার কারুকাযময় সুউচ্চ মঠ, ভাঙ্গা প্রাচীর, পাকাঘাট এখনও কালের সাক্ষী হয়ে দাঁড়িয়ে আছে। কিন্তু সন্নাসী এখনও এ আখড়ায় অবস্থান করেন।

৭) চন্দ্রনাথ গোস্বামীর আখড়া:নিকলী সদর ইউনিয়নের মোহরকোনা ভাটিপাড়ায় সাধক চন্দ্রনাথ গোস্বামীর আখড়াটি অবস্থিত। এ আখড়া ঘিরে এ অঞ্চলে অনেক কিংবদন্তী রয়েছে। প্রচলিত আছে-একদা মনষা দেবী মানবরূপ ধারণ করে এ আখড়ায় আর্বির্ভূত হয়েছিলেন এবং তাঁর রূপে মুগ্ধ হয়ে অনেকেই তাঁকে বিবাহের প্রস্তাব দেন। এ সমস্যা সমাধানকল্পে দেবী নৌকা বাইচের আয়োজন করতে বলেন এবংযে নৌকা সবার আগে আখড়ার ঘাটে এসে ভিড়বে, সে নৌকার মাঝিকেই তিনি বিয়ে করবেন কথিত আছে, এভাবেই নিকলী’র ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচের শুরু।


Share with :

Facebook Twitter